Showing posts with label টিউমার ও ক্যান্সার. Show all posts
Showing posts with label টিউমার ও ক্যান্সার. Show all posts

Friday, November 9, 2018

লাইপোমা কি ধরণের রোগ ? Lipoma টিউমারের লক্ষণ ও স্থায়ী হোমিও চিকিৎসা

লাইপোমা চর্বিযুক্ত টিউমার - আপনারা হয়তো জানতে চাইছেন, লাইপোমা কেন হয় ? কি ধরণের রোগ? লাইপোমা টিউমারের হোমিও চিকিৎসা এবং এটি কি ম্যালিগন্যান্ট টিউমার? ইত্যাদি। Lipoma সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিডিওটি দেখুন -
চামড়ায় টিউমার ও চিকিৎসামানবদেহ গঠনে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান চর্বি (ফ্যাট টিস্যু)। চামড়ার নিচের চর্বি আমাদের দেহকে বাইরের আবহাওয়ার ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষা করে। আবার দেহের তাপমাত্রার ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণও করে থাকে। কিন্তু উপকারী এ চর্বি কখনো কখনো কারও কারও ক্ষেত্রে উপকারের পাশাপাশি ভিন্ন রূপে দেখা দেয়। শরীরের বিভিন্ন স্থানে এ চর্বি বৃদ্ধি পেয়ে টিউমারের রূপ ধারণ করে। এ ধরনের টিউমারকে বলে লাইপোমা বা স্কিন টিউমার।

লাইপোমা যেখানে হয় 

স্কিন টিউমার সাধারণত হাত-পায়ে বেশি দেখা দেয়। এছাড়া ঘাড়, বগলের নিচে, কপাল কিংবা পিঠে এ ধরনের টিউমার দুইশ বা তারও বেশি হতে পারে।
Lipoma টিউমারের লক্ষণ ও স্থায়ী হোমিও চিকিৎসা

লাইপোমার  ধরন

এ ধরনের টিউমারে কোনো ব্যথা থাকে না। সবচেয়ে বড় কথা, স্কিন টিউমার ক্ষতিকর বা জীবনঘাতী কিছু নয়। তাই আতঙ্কিত হওয়ারও কোনো কারণ নেই। আঙুলে চাপ দিয়ে এটি অনুভব করা যায়। এ ধরনের টিউমার নির্দিষ্ট আকৃতির মধ্যে থাকে এবং কোনো ক্ষতি ছাড়াই বছরের পর বছর বিরাজ করতে পারে। সাধারণ লাইপোমা ছাড়াও এনজিওলাইপোমা, নিউরাল ফাইব্রোলাইপোমা, স্পিন্ডলসেল লাইপোমা বা লাইপোমেটোসিস ধরনের স্কিন লাইপোমা রয়েছে।

রোগ নির্ণয়

লাইপোমা বা স্কিন টিউমার নির্ণয়ে বাহ্যিক পরীক্ষার ওপরই বেশি জোর দেওয়া হয়। অর্থাৎ লাইপোমার আকার-আকৃতি বুঝে পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন হয়। প্রয়োজনে বায়োপসিও করানো হয়।

চিকিৎসা

লাইপোমা বা স্কিন টিউমারের সবচেয়ে ভালো চিকিৎসা হলো হোমিওপ্যাথি। তবে এর জন্য লোকাল কোন হোমিও ডাক্তারের থেকে চিকিৎসা না নিয়ে অভিজ্ঞ একজন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শ মোতাবেক চিকিৎসা নিন। ইনশাল্লাহ এই সমস্যা আপনার থাকবে না এতটুকু আশ্বাস দিতে পারি। 
বিস্তারিত

ফাইব্রয়েড কি? জরায়ুর টিউমারের লক্ষণ ও স্থায়ী হোমিও চিকিৎসা

আপনি হয়তো জানতে চাচ্ছেন - ফাইব্রয়েড টিউমার (Fibroids tumors), জরায়ুর টিউমার চিকিৎসা, ফাইব্রয়েড কি, জরায়ুর টিউমারের লক্ষণ, হোমিও চিকিৎসা, অপারেশন খরচ, জরায়ুর টিউমার কেন হয় ? এই সকল বিষয় সম্পর্কে। সব কিছু বিস্তারিত জানতে ভিডিওটি দেখুন -
ফাইব্রয়েড জরায়ু (Fibroid Uterus) জরায়ুর মধ্যে হওয়া অতি সাধারণ ধরনের টিউমার হল ফাইব্রয়েড। প্রায় অধিকাংশ ক্ষেত্রে এই সব টিউমার ম্যালিগন্যান্টধর্মী নয় অর্থাৎ এর থেকে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

জরায়ুর টিউমারের লক্ষণ

ফাইব্রয়েডের অবস্থান ও আকৃতির ওপর এর উপসর্গ নির্ভর করে। ফাইব্রয়েড থাকে এরকম মহিলাদের তলপেট সাধারণত অত্যন্ত ভারী হয়। ঋতুকালীন অতিরিক্ত রক্তস্রাব ও ব্যথা ফাইব্রয়েডের অন্য সাধারণ উপসর্গ। এই সমস্ত মহিলার মধ্যে কারও সন্তান ধারণে সমস্যা দেখা যায় অথবা খুব ঘন ঘন গর্ভপাত হয়। 
ফাইব্রয়েড কি? জরায়ুর টিউমারের লক্ষণ ও স্থায়ী হোমিও চিকিৎসা
জরায়ুর বাইরের দিকে ফাইব্রয়েড অবস্থান করছে এই রকম অধিকাংশ মহিলা থাকেন উপসর্গহীন। তবে এর অবস্থান যদি জরায়ুর অন্দরে হয় তা হলে অধিকাংশ রোগী অতিরিক্ত রক্তপাত, বন্ধ্যাত্ব ও ঘন ঘন গর্ভপাতের মতো উপসর্গ দেখায়। সাধারণত আলট্রাসোনোগ্রাফির সাহায্যে ফাইব্রয়েড নির্ধারণ করা হয়।
দুর্ভাগ্যবশত ফাইব্রয়েড থেকে স্থায়ীভাবে মুক্তি পাওয়ার মতো কোনও এলোপ্যাথিক ওষুধ নেই। তাই এই সমস্যা নিয়ে কোন এলোপ্যাথিক ডাক্তারের কাছে গেলে তারা অপারেশন করে আপনার জরায়ু কেটে ফেলে দিবে। 
কিন্তু সৌভাগ্যবশতঃ ফাইব্রয়েড থেকে স্থায়ীভাবে মুক্তি পাওয়ার জন্য বহু উন্নত মানের হোমিও ঔষধ রয়েছে যা আপনাকে চির জীবনের জন্য এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিবে। 
জরায়ুর টিউমার থেকে স্থায়ী ভাবে মুক্তি পেতে লোকাল কোন হোমিও ডাক্তারের থেকে চিকিৎসা না নিয়ে অভিজ্ঞ একজন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শ মোতাবেক চিকিৎসা নিন। ইনশাল্লাহ এই সমস্যা আপনার থাকবে না এত টুকু আশ্বাস দিতে পারি। 
বিস্তারিত